এরদোগানও বললেন, ‘গরীব না ধনী দেশে যাচ্ছে ইউক্রেনের শস্য’

এরদোগানও বললেন, ‘গরীব না ধনী দেশে যাচ্ছে ইউক্রেনের শস্য’

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বুধবার দাবি করেন, ইউক্রেনের শস্য গরীব দেশে যাওয়ার বদলে ইউরোপের ধনী দেশগুলোতে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার পুতিনের এ দাবির সঙ্গে একই সুরে কথা বলেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান।

রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করার পর কৃষ্ণ সাগরে অবরোধ আরোপ করে। এতে করে ইউক্রেনের শস্য রপ্তানি বন্ধ হয়ে যায়। আর এর ফলে পশ্চিমা দেশগুলোর পক্ষ থেকে বলা হয়- ইউক্রেনের শস্য রপ্তানি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিশ্ব খাদ্য সংকটে পড়বে। বিশেষ করে আফ্রিকা ও উন্নয়নশীল দেশগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

এ কারণে তুরস্ক ও জাতিসংঘ রাশিয়াকে বুঝিয়ে গত জুলাইয়ে অবরোধ তুলে দেয়। এরপর পুনরায় শুরু হয় ইউক্রেনের শস্য রপ্তানি।

তবে পুতিন দাবি করেছেন, গরীব দেশগুলোর সঙ্গে ‘প্রতারণা’ করে ইউক্রেনের শস্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ইউরোপের ধনী দেশগুলোতে।

বৃহস্পতিবার ক্রোয়েশিয়ার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে একটি যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, পুতিন যে দাবি করেছেন সেটি সত্য।

তিনি আরও জানিয়েছেন, রাশিয়ার ওপর যেসব দেশ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সেসব দেশে ইউক্রেনের শস্য যাওয়ায় বিষয়টি নিয়ে ক্ষুদ্ধ হয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট।

তবে ইউক্রেনের শস্য গুলো কোথায় গেছে সেটির তালিকা অনুযায়ী, ৩০ ভাগের বেশি শস্য গেছে উন্নয়নশীল বা অনুন্নত দেশে।

সূত্র: আল জাজিরা


Leave a Reply

Your email address will not be published.