অহন আমাগো সংসার কী কইরা চলবো’

অহন আমাগো সংসার কী কইরা চলবো’

স্বামীডারে আল্লায় নিয়া গেল, একমাত্র ছাওয়াল শাহীন সেও বাঁইচা রইলো না। আমার গতরেও খাইটা খাওয়ানের শক্তি নাই। অহন আমাগো সংসার চলবো কী কইরা’। আহাজারি করতে করতে এই কথাগুলো বলছিলেন সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার শিবপুর গ্রামের শমসের আলীর স্ত্রী শান্তি খাতুন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার পঞ্চক্রোশী ইউনিয়নের মাটিকোড়া গ্রামে বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন শান্তি খাতুনের পরিবারের পাঁচ সদস্য। ধানের চার রোপনের সময় বজ্রপাত কেড়ে নিয়েছে তার স্বামী শমসের আলী (৬২), ছেলে শাহীন (২০), মেয়ের জামাই মোকাম হোসেন (৪০), নাতি মোন্নাফ হোসেন (১৭) ও দেবর আফসার আলী (৬০)।

মুহূর্তের মধ্যে পরিবারের ৫ সদস্যকে হারিয়ে ষাটোর্ধ্ব এই নারী এখন দিশেহারা। তার গগণবিদারী আর্তনাদে ভারী হয়ে উঠছে শিবপুর গ্রামের পরিবেশ।

বৃহস্পতিবারের এই বজ্রপাতে নিহত হয়েছেন মাটিকোড়া গ্রামের আরও ৪ কৃষি শ্রমিক। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ৪ জন। তারা সবাই পেশায় কৃষি শ্রমিক।

এদিন রাতে শান্তি খাতুনের স্বজনদের মরদেহ বাড়িতে আনা হয়। এসময় স্বজনদের কান্না ও আহাজারিতে সেখানকার পরিবেশ ভারী হয়ে ওঠে। স্বামী-সন্তানের লাশের পাশে আহাজারি করতে করতে বুক চাপড়ে এলোমেলো অনেক কথাই বলছিলেন শান্তি খাতুন।


Leave a Reply

Your email address will not be published.